মুজিব শতবর্ষ
-23দিন -12ঘণ্টা -33মিনিট -23সেকেন্ড

IMG_3670

শহীদ মোসলেম উদ্দিন ছাত্রাবাস

রংপুর সরকারি কলেজ, রংপুর।

সকল পর্যায়ের শিÿায় জনগণের প্রবেশাধিকার উম্মুক্ত ও তরান্বিত করে দক্ষ জনগোষ্ঠী সৃষ্টি এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে বহুমূখী পন্থায় সর্বসত্মরের শিÿা ও জ্ঞান-বিজ্ঞানের সম্প্রসারণ, শিÿার মান উন্নয়ন এবং শিÿাকে গণমুখীকরণের মাধ্যমে সর্বসারংপুর সরকারি কলেজ ১৯৬৩ খ্রিষ্টাব্দে রাম বাবুর জমিদার বাড়ীতে (কালীধাম) একটি বেসরকারি নৈশ কলেজ হিসেবে প্রথমত প্রতিষ্ঠিত হয় যা বর্তমানে শহীদ মোসলেম উদ্দিন ছাত্রাবাস নামে পরিচিত। পরবর্তীতে কলেজটি বর্তমান স্থানে স্থানামত্মরিত হয়। ১৯৭১ খ্রিষ্টাব্দে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে অত্র কলেজের ছাত্র মোসলেম উদ্দিন শহীদ হন। তাঁর নামানুসারে ছাত্রাবাসটির নামকরণ করা হয় শহীদ মোসলেম উদ্দিন ছাত্রাবাস। যা অদ্যাবধি পরিচালিত হয়ে আসছে।

ভূমির তফশিলঃ

তফশিলঃ মৌজা-রাধাবলস্নভ, থানাঃ কোতয়ালী, জেলাঃ রংপুর।

খতিয়ানঃ ১।

দাগ নংঃ ১৮৮৮।

পরিমানঃ ০.৫৪ শতক (ছাত্রাবাসের সামনে ছাত্রদের জন্য খালি জায়গা ০.২৬ শতক) মোটঃ ০.৮০ শতক।

সার্বিক তত্বাবধায়নঃ

জনাব কানিজ উম্মে নাজমা নাসরীন, অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত), রংপুর সরকারি কলেজ, রংপুর।

শহীদ মোসলেম উদ্দিন ছাত্রাবাস মনিটরিং কমিটিঃ

  • জনাব এস এম আব্দুল মতিন লস্কর, সহযোগী অধ্যাপক, হিসাববিজ্ঞান বিভাগ – আহবায়ক
  • ,, মো. হাবিবুজ্জামান, সহকারী অধ্যাপক, হিসাববিজ্ঞান বিভাগ – সদস্য
  • ,, মো. কামরম্নজ্জামান পাইকাড়, প্রভাষক, অর্থনীতি বিভাগ – সদস্য
  • ,, মো. শামিউল ইসলাম প্রামাণিক, প্রভাষক, ইস. ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগ – সদস্য
  • ,, সহিদুল ইসলাম, প্রভাষক, ব্যবস্থাপনা বিভাগ – সদস্য

শহীদ মোসলেম উদ্দিন ছাত্রাবাস-এর সুপার ও সহ.সুপারঃ

  • জনাব মো. হারম্নন-অর-রশীদ, প্রভাষক, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগ, অত্র হোস্টেল -সুপার।
  • ২। ,, মো. আজিজুল হক, প্রভাষক, বাংলা বিভাগ, অত্র হোস্টেল -সহ.সুপার।

শহীদ মোসলেম উদ্দিন ছাত্রাবাস এর-সহায়ক কর্মচারীঃ

মো. হাকিবুর রহমান হিরম্ন, এমএলএসএস, অত্র হোস্টেল।

শহীদ মোসলেম উদ্দিন ছাত্রাবাস-এর বসবাসরত মোট ছাত্র সংখ্যাঃ

৬০ (ষাট) জন

শহীদ মোসলেম উদ্দিন ছাত্রাবাস-এর বসবাসরত মোট কÿÿর সংখ্যাঃ

২০ টি (পূর্ব বস্নক ও পশ্চিম বস্নক)

শহীদ মোসলেম উদ্দিন ছাত্রাবাস-এর ছাত্রদের সীট বরাদ্দের নিয়মাবলীঃ

গরীব অথচ মেধাবী ছাত্ররা ছাত্রাবাসের সীটের জন্য প্রথমত সুপার বরাবর ছাত্রাবাসের নির্ধারিত ফরমে নির্দিষ্ট সময়ে আবেদন করে। আবেদন ফরমগুলো সুপার ছাত্রাবাস মনিটরিং কমিটির নিকট প্রেরণ করেন। ছাত্রাবাস মনিটরিং কমিটি সুপার ও সহ. সুপারকে সাথে নিয়ে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে নির্ধারিত তারিখে আবেদনকৃত ছাত্রদের সাÿাৎকার গ্রহণ করে মনোনীত করেন। অতঃপর অধ্যÿ মহোদয়ের চুড়ামত্ম অনুমোদনক্রমে মনোনীত ছাত্রদের জন্য শর্ত সাপেÿÿ সাময়িকভাবে সীট বরাদ্দ দেয়া হয়ে থাকে।